ভাসানী কাহিনী- সৈয়দ আবুল মকসুদ- আগামী প্রকাশনী - ২৭০ টাকা  ||  শেখ মুজিবুর রহমান এর “অসমাপ্ত আত্মজীবনী”, দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড, মূল্য ৫২৫ টাকা  ||  Ryansbooks এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভেচ্ছা ।  ||  

দেয়াল

হুমায়ূন আহমেদ 

ভাদ্র মাসের সন্ধা। আকাশে মেঘ আছে। লালচে রঙের মেঘ। যে মেঘে বৃষ্টি হয় না, তবে দেকায় অপূর্ব। এই গাঢ় লাল, এই হালকা হলুদ, আবার চোখের নিমিষে লালের সঙ্গে খয়েরি মিশে সম্পূর্ণ অন্য রঙ। রঙের খেলা যিনি খেলছেন মনে হয় তিনি সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছেন।’ এভাবেই  ... Order Now

আদমবোমা

সলিমুল্লাহ খান 

‘যে কোন মূল্যে’ স্বধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করিতে হইবে । এই শপথবাক্য নিত্য যাঁহারা উচ্চারণ করিয়া থাকেন তাঁহারা নিজেদের বলিয়া থাকেন ‘স্বাধীনতা অতন্দ্র প্রহরী’। সবার উপরে স্বাধীনতা সত্য, তাহার উপরে নাই । স্বাধীনতার নিকট শুদ্ধ প্রাণ নহে, খোদ ন্যাযবিচ  ... Order Now

সংবাদপত্রে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা

দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস (সম্পাদক) 

যুদ্ধ ও গণমাধ্যমের সম্পর্ক সব সময়ই সাংঘর্ষিক। যেকোনো যুদ্ধে প্রথম মৃত্যু হয় সত্যের। সত্যের প্রতীক ধরা হয় সংবাদপত্রকে। আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শহীদদের অন্যতম এ দেশের সংবাদপত্রগুলো। মুক্তিযুদ্ধের সময় এ দেশের সংবাদপত্রের ভূমিকা ছিল দ্বিধান্বি  ... Order Now

হুমায়ূন আহমেদের শেষ দিনগুলো

বিশ্বজিত সাহা 

নিউইয়র্কে হুমায়ূন আহমেদের চিকিৎসাকালীন দিনগুলো- তার ভক্তদের জন্য ছিল মর্মস্পর্শী উৎকণ্ঠা নিয়ে অপেক্ষার কাল। পত্রিকার কাটতি বাড়ানোর জন্যে প্রতিটি পত্রিকাই ধারাবাহিক ভাবে ছাপছিল হুমায়ূন আহমেদের চিকিৎসা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য। সত্য, মিথ্যা কিংবা   ... Order Now

ধরন
বিষয়
লেখক
প্রকাশনী
Distributor
প্রকৃতি
Cover Designer
পুরস্কার
কিওয়ার্ড
test

সংক্ষেপ

      ‘বাংলাদেশের সার্বিক অগ্রগতির লক্ষ্যে একটি প্রস্তাব’ (প্রকাশক : নবরাগ প্রকাশনী) গ্রন্থটি বর্তমান সময়ে চলমান অস্থিরতা ও পিছিয়ে-পড়া প্রবণতার জন্য আশাজাগানিয়া ও দিকনির্দেশক হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।
      ঐতিহ্য-অনুসন্ধানি কবি-কথাশিল্পী-নিবন্ধকার এবং বাঙালি মুসলিম সাহিত্যধারার অন্যতম প্রধান চিন্তাবিদ মনিরউদ্দীন ইউসুফ (জন্ম : কিশোরগঞ্জ, ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৯১৯; মৃত্যু : ঢাকা, ১১ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭) রচিত এই বইটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৮৪ সালের এপ্রিলে। প্রকাশক আজকের বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে বইটি নতুনভাবে পাঠকের সামনে হাজির করেছেন সম্ভবত কোনো ইতিবাচক প্রবণতার সাথে এই প্রজন্মকে পরিচয় করিয়ে দিতে। আমরা যে ইতিহাস-ঐতিহ্যবিচ্যুতি, আদর্শ ও চিন্তাশীলতার অভাব প্রভৃতি কারণে ধর্মীয়-সাংস্কৃতিক-অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক দিক-নির্দেশনার স্বচ্ছ ধারণা থেকে দূরে সরে পড়ছি, পথ চলতে পদে পদে বিপন্ন হচ্ছি, তার একটি স্পষ্ট চিত্র পাওয়া যায় বর্তমান গ্রন্থে। লেখক জানাতে চেয়েছেন, প্রগতিশীলতা-দেশপ্রেম-সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও সহাবস্থান; সমাজ-পুঁজিবাদ-মানবিকতা এবং ব্যক্তির প্রয়োজন সম্বন্ধে যদি আমরা সচেতন হয়ে উঠি, তাহলে জাতীয় অগ্রগতি অর্জন সম্ভব। সমকালের দায় ও দাবিতে ব্যক্তির দৃষ্টিভঙ্গি ও প্রচেষ্টার পথ-অন্বেষার জন্য এই বইটি প্রেরণা-প্রদানকারী হিসেবে কিছুটা হলেও কাজ করতে পারে।